Home / কবিতা

কবিতা

একদিন আসবে সুদিন

তগপজস

এই বৈশাখে ‘একদিন আসবে সুদিন‘ সংযুক্তকারী স্তবক ও পাণ্ডুলিপি জাহিন জামাল পাঠ (পাঠক্রম অনুসারে ) ত্রপা মজুমদার রামেন্দু মজুমদার সৈয়দ আপন আহসান গানের কণ্ঠ : ঋদ্ধি বন্দ্যোপাধ্যায় চিত্ররূপ : প্রদীপ চক্রবর্তী সাউন্ড মিক্সিং : রাজীবুল রনি এনিমেশন : মো. মিলন এখানে ব্যবহৃত কবিতা, গান এবং স্তবকসমূহ শিল্পীগণ নিজ নিজ মুঠোফোনে …

Read More »

করুণ নেক্রপলিস থেকে

আমি বিশ্বাস করি এই বিরুদ্ধ সময় শেষ হবে। আবার আমরা একত্রিত হবো, মিলনের গান হবে, ঝগড়া হবে, রাগ হবে বিরাগ হবে আনন্দ বেদনার কাব্য হবে । সেই আশায় এই পাঠ। “বিশ্বাস করো, আমাদের এই পৃথক থাকার দিন সত্যিই শেষ হবে একদিন।”

Read More »

যাবার বেলায়

যাবার বেলায় – “নদীর পাড়ে দাঁড়িয়ে আছে দীর্ঘ দিনের বন্ধু যারা, তাদের আমি দেখছি, তবে দিচ্ছি না আর কাউকে সাড়া । ডাকছে তারা, ডেকেই যাচ্ছে, বড্ড ভালো বাসত যে-যে, তাই বলে কি ফিরব নাকি, ফিরতে ভীষণ ভয় করে যে । ফেরার মানেই বন্ধ কোটর, সেই যেখানে বয় না হাওয়া, এক …

Read More »

তোমাকে অভিবাদন প্রিয়তমা

তোমাকে অভিবাদন প্রিয়তমা – শহীদ কাদরী ভয় নেই আমি এমন ব্যবস্থা করবো যাতে সেনাবাহিনী গোলাপের গুচ্ছ কাঁধে নিয়ে মার্চপাস্ট করে চলে যাবে এবং স্যালুট করবে কেবল তোমাকে প্রিয়তমা। ভয় নেই, আমি এমন ব্যবস্থা করবো বন-বাদাড় ডিঙ্গিয়ে কাঁটা-তার, ব্যারিকেড পার হয়ে, অনেক রণাঙ্গনের স্মৃতি নিয়ে আর্মার্ড-কারগুলো এসে দাঁড়াবে ভায়োলিন বোঝাই করে কেবল …

Read More »

টিউটোরিয়াল

টিউটোরিয়াল – জয় গোস্বামী তোমাকে পেতেই হবে শতকরা অন্তত নব্বই (বা নব্বইয়ের বেশি) তোমাকে হতেই হবে একদম প্রথম তার বদলে মাত্র পঁচাশি! পাঁচটা নম্বর কম কেন? কেন কম? এই জন্য আমি রোজ মুখে রক্ত তুলে খেটে আসি? এই জন্যে তোমার মা কাক ভোরে উঠে সব কাজকর্ম সেরে ছোটবেলা থেকে যেতো তোমাকে …

Read More »

গৃহত্যাগী জ্যোৎস্না

গৃহত্যাগী জ্যোৎস্না – হুমায়ূন আহমেদ প্রতি পূর্নিমার মধ্যরাতে একবার আকাশের দিকে তাকাই গৃহত্যাগী হবার মত জ্যোৎস্না কি উঠেছে ? বালিকা ভুলানো জ্যোৎস্না নয়। যে জ্যোৎস্নায় বালিকারা ছাদের রেলিং ধরে ছুটাছুটি করতে করতে বলবে- ও মাগো, কি সুন্দর চাঁদ ! নবদম্পতির জ্যোৎস্নাও নয়। যে জ্যোৎস্না দেখে স্বামী গাঢ় স্বরে স্ত্রীকে বলবেন- …

Read More »

মিলিত মৃত্যু

মিলিত মৃত্যু নীরেন্দ্রনাথ চক্রবর্তী বরং দ্বিমত হও, আস্থা রাখ দ্বিতীয় বিদ্যায়। বরং বিক্ষত হও প্রশ্নের পাথরে। বরং বুদ্ধির নখে শান দাও, প্রতিবাদ করো। অন্তত আর যাই করো, সমস্ত কথায় অনায়াসে সম্মতি দিও না। কেননা, সমস্ত কথা যারা অনায়াসে মেনে নেয়, তারা আর কিছুই করে না, তারা আত্মবিনাশের পথ পরিস্কার করে। …

Read More »

সোনার মেডেল

সোনার মেডেল – পূর্ণেন্দু পত্রী বাবু মশাইরা গাঁ গেরাম থেকে ধুলো মাটি ঘসটে ঘসটে আপনাদের কাছে এয়েছি। কি চাক্ চিকান শহর বানিয়েছেন গো বাবুরা। রোদ পড়লে জোছনা লাগলে মনে হয় কাল-কেউটের গাঁ থেকে খসে পড়া রুপোর তৈরী একখান লম্বা খোলস। মনের উনোনে ভাতের হাঁড়ি হাঁ হয়ে আছে খিদেয় চালডাল তরিতরকারি …

Read More »

স্বাধীনতা, এই শব্দটি কীভাবে আমাদের হলো

স্বাধীনতা, এই শব্দটি কীভাবে আমাদের হলো – নির্মলেন্দু গুণ একটি কবিতা লেখা হবে তার জন্য অপেক্ষার উত্তেজনা নিয়ে লক্ষ লক্ষ উন্মত্ত অধীর ব্যাকুল বিদ্রোহী শ্রোতা বসে আছে ভোর থেকে জনসমুদ্রের উদ্যান সৈকতে: ‘কখন আসবে কবি?’ এই শিশু পার্ক সেদিন ছিল না, এই বৃক্ষে ফুলে শোভিত উদ্যান সেদিন ছিল না, এই …

Read More »

মানুষ

মানুষ – নির্মলেন্দু গুণ আমি হয়তো মানুষ নই, মানুষগুলো অন্যরকম, হাঁটতে পারে, বসতে পারে, এ-ঘর থেকে ও-ঘরে যায়, মানুষগুলো অন্যরকম, সাপে কাটলে দৌড়ে পালায় । আমি হয়তো মানুষ নই, সারাটা দিন দাঁড়িয়ে থাকি, গাছের মতো দাঁড়িয়ে থাকি। সাপে কাটলে টের পাই না, সিনেমা দেখে গান গাই না, অনেকদিন বরফমাখা জল …

Read More »